পাঠচক্র : ঝুঁকিতে জনস্বাস্থ্য , বংশগতির প্রভাব

24291751_1875997992427871_8544550197765212925_o

 

চিকুনগুনিয়া, এইডস এসব নিয়ে মিডিয়াতে কথা হয় নিয়মিতই। সরকার ও বেসরকারী প্রতিষ্ঠানগুলোও এগুলো নিয়ে সচেতনতা বাড়ানোর কাজে ব্যস্ত থাকে। সংক্রামক রোগ ও রক্তবাহিত রোগগুলোর উপরেই পাবলিক হেলথ সেক্টরে সবচেয়ে বেশি মনোযোগ দেয়া হয়ে থাকে। জেনেটিক রোগ, অর্থাৎ বংশের ধারায় চলে আসা রোগগুলো রয়ে যায় অবহেলায়। কারণ ভাবা হয় যে এগুলো তত বেশি মানুষের হয়না। কিন্তু এই মনোভাব বদলে যাওয়া শুরু হয়েছে। আধুনিক জেনেটিক্স দেখিয়েছে যে বাংলাদেশের জনসংখ্যার একটা বড় অংশ বিভিন্ন প্রাণঘাতী জেনেটিক রোগে আক্রান্ত। মানুষগুলোর বেশিরভাগই শুধু রোগগুলোর “ক্যারিয়ার” অর্থাৎ এরা নিজেরা অসুস্থ না। কিন্তু তাদের সাথে আরো একজন ক্যারিয়ারের সন্তান হলে সেই সন্তানের এই রোগ হতে পারে। এমন হলে দেখা যায় যে একটা পর্যায়ে ওই দম্পতির সন্তানদের অনেকেই মারা যায় বা মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পরে। পুরো পরিবারে নেমে আসে শোকের মাতম। অথচ এটা এড়ানো যেত বিয়ের আগে বর ও কনের সাধারণ একটা টেস্টের দ্বারা।

এসব জেনেটিক রোগ কি? ঠিক কি পদক্ষেপ নিলে আপনি এগুলো এড়াতে পারবেন ব্যক্তিগত জীবনে? এসব নিয়ে কথা হবে। কথা হবে বাংলাদেশে পাবলিক হেলথ সেক্টর নিয়েও। পাঠচক্রটি সবার জন্য উন্মুক্ত। আপনি আমন্ত্রিত।

তারিখ:৭ই ডিসেম্বর,বৃহস্পতিবার
সময়:৪.১৫-৬.১৫

স্থান:শহীদ মুনীর চৌধুরী কনফারেন্স রুম,২য় তলা,টিএসসি,ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *