Seminar: Thalassemia Can be Prevented

      No Comments on Seminar: Thalassemia Can be Prevented

29351883_2012685702092432_595933205283625099_o

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় সায়েন্স সোসাইটির এবারের সেমিনারের বিষয়বস্তু: ‘Thalassemia Can Be Prevented’। বক্তা হিসেবে থাকছেন ‘ইন্সটিটিউট ফর ডেভেলপিং সাইন্স অ্যাণ্ড হেলথ ইনিশিয়েটিভস’এর সম্মানিত সায়েন্টিফিক কো-অর্ডিনেটর প্রফেসর ড. সৈয়দ সালেহীন কাদরী।

‘থ্যালাসেমিয়া’ সময়ের অন্যতম আলোচিত এক ব্যাধি। দক্ষিণ এশিয়ার দেশগুলোর মধ্যে থ্যালাসেমিয়ায় মৃত্যু হারের বিবেচনায় বাংলাদেশের অবস্থান তৃতীয়। এ থেকে বোঝা যায়, আমাদের অবস্থা কত শোচনীয়!

থ্যালাসেমিয়া জন্মগত মারাত্মক এক জিনগত রোগের নাম। আরো সুনির্দিষ্টভাবে বলা যায়, লোহিত রক্ত কণিকার হিমোগ্লোবিন তৈরির জিনে অস্বাভাবিকতা এর জন্য দায়ী। মা-বাবার কাছ থেকে পাওয়া জিনের ভিত্তিতে সন্তানের শরীরে থ্যালাসেমিয়ার জিন থাকলেও সন্তান থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্ত নাও হতে পারে। কিভাবে এটি সম্ভব? থ্যালাসেমিয়া বাহক বলতে আসলে কি বোঝানো হয়?

থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্তদের মধ্যে রক্তস্বল্পতা দেখা দেয়াটা খুবই স্বাভাবিক কারণ তাদের হিমোগ্লোবিন কমে যায়। তাদের স্বাভাবিক জীবনযাপনের অংশ নিয়মিত রক্ত গ্রহণ। শুধু রক্ত নিলেই কি এ রোগ প্রতিরোধ সম্ভব? চিকিৎসা বিজ্ঞানের এ উৎকর্ষের যুগে থ্যালাসেমিয়া থেকে সম্পূর্ণ সুস্থ হওয়ার সম্ভাবনা কি নেই? কেন থ্যালাসেমিয়া আক্রান্তদের আয়রন সমৃদ্ধ খাবার গ্রহণে সীমারেখা দেয়া হয়? সচেতনতার মাধ্যমে থ্যালাসেমিয়া কি প্রতিরোধ করা যাবে? এমন সব হাজারো প্রশ্নের জবাব জানা যাবে আমাদের এবারের সেমিনারে।

Location link: https://www.facebook.com/deptofSWE.DU/

সেমিনারটি সবার জন্য উন্মুক্ত, তবে আসনসংখ্যা সীমিত বিধায় অংশগ্রহণের জন্য রেজিস্ট্রেশন করতে হবে।

 

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *